বান্দরবান জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম ইউপির তুমব্রু সীমান্তে  মিয়ানমার থেকে ছোড়া অবিস্ফোরিত আরও একটি মর্টার শেল উদ্ধার করেছে বিজিবি। তবে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুম- তুমব্রু সীমান্ত কিছুটা শান্ত হলেও জনমনে রয়েছে আতঙ্ক।
শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৯ টার দিকে তুমব্রু সড়কের ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায় অক্ষত অবস্থায় মর্টার শেলটি উদ্ধার করা হয়। এই পযর্ন্ত ঘুমধুম সীমান্ত থেকে তিন দিনে ৩টি তাজা মর্টারশেল উদ্ধার হলো।
স্থানীয়রা জানান, সকালে তুমব্রু পশ্চিমকুল এলাকার ব্রিজের পাশে অবিস্ফোরিত মর্টার শেল দেখতে পায় স্থানীয়রা। পরে বিজিবিকে খবর দিলে মর্টার শেলটি উদ্ধার করে নিরাপদ স্থানে রাখা হয়।  
এ নিয়ে ঘুমধুম সীমান্ত থেকে প্রায় ৩টি থেকে একটি নিষ্ক্রিয় করা হলেও দুটি মর্টার শেল অবিস্ফোরিত নিরাপদ স্থানে রেখেছে তুমব্রু বিওপি।
১ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য শফিকুল ইসলাম বলেন, সকালে ব্রিজ সংলগ্ন মর্টার শেলটি দেখে বিজিবিকে খবর দেয়া হয়। পরে সেই মর্টার শেল উদ্ধার করে তারা নিরাপদ স্থানে নিয়ে গেছে।
এ বিষয়ে ঘুমধুম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান একেএম জাহাঙ্গীর আজিজ  বলেন, ঘুমধুম সীমান্ত পরিস্থিতি এখন অনেকটাই শান্ত। তবে বিভিন্ন স্থানে পরিত্যক্ত অবস্থায় অবিস্ফোরিত মর্টারসেলের গোলা পড়ে থাকায় স্থানীয়রা কিছুটা আতঙ্কিত । এ পর্যন্ত সীমান্তে ৩টা অবিস্ফোরিত মর্টার সেলের গোলা পাওয়া গেলেও একটা নিস্ক্রিয় করেছে বাকি ২টা বিজিবি হেফাজতে রেখেছে।
নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের নয়াপাড়া থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় উদ্ধার হওয়া মর্টার শেলটি গত শুক্রবার সেনাবাহিনী ও বিজিবির বোমা বিশেষজ্ঞ দল সফলতার সাথে নিষ্ক্রিয় করেছে।